ওয়ারিশ বন্টন আইন

এতে বিজ্ঞাপন রয়েছে
১ লা+
ডাউনলোড
সামগ্রীর রেটিং
প্রত্যেকে
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি
স্ক্রিনশটের ছবি

এই অ্যাপ সম্পর্কে

ওয়ারিশ বন্টন আইন (warish bonton আইন) অন্য যে কোন আইন থেকে একটু জটিল। এ কারনেই ওয়ারিশ আইন অনুযায়ী মূত ব্যক্তির সম্পত্তি বন্টেনের সময় বেশ ঝামেলা সৃষ্টি হয়, অনেক ক্ষেত্রেই তা কোর্ট পর্যন্ত গড়ায়। কোর্টে মামলা চলে বছরের পর বছর, এতে বাদি-বিবাদি দুই পক্ষই প্রায় সমান হারে ক্ষতির ভেতরে পড়ে। উপর্যুপরি দুপক্ষের ভেতরে সম্পর্ক নষ্ট হয়। নারীদের সম্পত্তির ভাগ বা অধিকার এবং দূরবর্তী আত্বিয়দের অধিকার ও সম্পত্তি বন্টন নিয়েই বেশি জটিলতা সৃষ্টি হতে দেখা গিয়েছ। এমন কি সম্পত্তি বন্টনের পরেও সম্পত্তি হস্তান্তর নিয়েও মাঝে মাঝে জটিলতা সৃষ্টি হয়। সাবরই উত্তরাধিকার আইন সম্পর্কে জানা থাকলে এমন অপৃতিকর ঘটনার সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়। আর সুষ্ঠ ভাবে ওয়ারিশ বন্টন সম্পূর্ন হওয়ার পর তা যথাযথ ভাবে হস্থান্ত করর জন্যও আছে "সম্পত্তি হস্থান্তর আইন"।

অন্য যে কোন দেশের থেকে বাংলাদেশের আইন কানুন বেশ ভাল, বিশেষ করে সম্পত্তি বন্টন করার ক্ষেত্রে। বেশ পরিস্কার এবং ন্যায় সঙ্গত ভাবেই ওয়ারিশ বন্টন আইন তৈরী করা হয়েছে। ওয়ারিরশ বন্টন আইনে স্পষ্ট করে আত্বিয়-স্বজনদের তালিকা এবং কোন আত্বিয় কত অংশ সম্পত্তির ভাগ পাবে তা উল্লেখ করা আছে। এমন কি সম্পত্তি ভাগ করার পরে তা প্রপকের কাছে হস্তান্তর করার জন্য রয়েছে সম্পত্তি হস্থান্তর আইন। তারপরেও কারনে-অকারনে অথবা করও কারও অসৎ উদ্দেশের কারনে সৃষ্টি হয় জটিলতা। এর প্রধান এবং অন্যতম একটি কারন বাংলাদেশে শিক্ষিতের হার কম হওয়া। যে কারনে স্বল্প শিক্ষিত বা অশিক্ষিত মানুষ গুলো নির্ভর করে তৃতীয় কোন ব্যাক্তি বা মানুষের পরামর্শের উপর। যে কোন ক্ষেত্রে বা কাজে তৃতীয় কোন পক্ষের আগমন ঘটা মানে সেই কাজে জটিলতা সৃষ্টি হওয়া। তাই প্রত্যেকের উচিত নিজেরাই ওয়ারিশ আইন / ওয়ারিশ বন্টন আইন / ওয়ারিশ সম্পত্তি বন্টন আইন সম্পর্কে নিজেরই পড়ে সুস্পষ্ট ধারনা রাখা।
বাংলাদেশের আইন কানুন জানা আগে বেশ দূরহ একটি ব্যাপার ছিল। কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশের সকল আইন কানুন ওয়েবে (ইন্টানেটে) পাওয়া যায়। বাংলাদেশে দুই প্রকারের ওয়ারিশ বন্টন আইন প্রচলিত আছে একটি রাষ্ট্র নির্ধারিত ওয়ারিশ আইন এবং অন্যটি মুসলিম উত্তরাধিকার আইন। কিছু কিছু ধারা ব্যতীত দুটি আইন খুব মিল রয়েছে। এক কাথায় মুসলিম আইনকে অনুসরন করে তৈরী করা হয়েছে বংলাদেশের ওয়ারিশ সম্পত্তি বন্টন আইন। তবে রাষ্টিয় আইন অনুযায়ী স্থানভেদে আইনের কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। মুসলিম এবং রাষ্ট্রীয় সমস্ত আইনের ধারা, উপধারা নিয়ে আমারা "ওয়ারিশ বন্টন আইন" এ্যাপ তৈরী করেছি, এ্যাপটিতে যে সমস্ত আইন পা্ওয়া যাবে: -

- ওয়ারিশ সম্পদ বন্টনের আইন।
- মুসলিম উত্তরাধিকার আইন।
- সম্পত্তি হস্তান্তর আইন।
- উত্তরাধিকার আইন।
- মুসলিম উত্তরাধিকর আইনে নারীদের অংশ যেভাবে ভাগ করা হযেছে।
- ওয়ারিশ-এ ফারায়েজ নিয়ে বিভ্রান্তির নিরসন।
- বাংলাদেশের অঞ্চল ভেদে সম্পত্তি বন্টন আইন।
- মৃত ব্যাক্তির আত্বীয়-স্বজনদের পূর্নঙ্গ তালিকা।
- দূরবর্তি আত্বীয় কোন পরিস্থিতির ভিত্তিতে কি পরিমান সম্পত্তির ভাগ পাবে তার স্পষ্ট ব্যাখ্যা।
তাই ওয়ারিশ বন্টন বা উত্তরাধিকার আইন সম্পর্কে জানতে আমাদের "ওয়ারিশ বন্টন আইন"

অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন। আর সম্পত্তির বন্টন সংক্রান্ত ঝামেলা এড়ানো জন্য নিকটতম আত্বিয় এবং দূরবর্তি আত্বীয়দের সাথে এ্যাপটি শেয়ার করুন। যেন সাবাই আইন সম্পর্কে জেনে নিজেদের অধিকার এবং প্রাপ্র সম্পর্কে জনাতে পারে। এ্যাপটি স্পর্কে কোন প্রকারের মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.sevenonelab.warishbonton_law
আপডেট করা হয়েছে
৫ নভে, ২০২২

ডেটা সুরক্ষা

অ্যাপ কীভাবে আপনার ডেটা সংগ্রহ ও ব্যবহার করে, ডেভেলপার সেই তথ্য এখানে দেখাতে পারেন। ডেটা সুরক্ষা সম্পর্কে আরও জানুন
কোনও তথ্য উপলভ্য নেই